ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি ১ম পত্র ঢাকা বোর্ড ২০২২

প্রশ্ন ১২·সময় ১৫ মিনিট

1. যশোধর সিং অভিনেতা এবং শরীর চর্চাবিদ হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার কারণে এমনিতেই তার অনেক অনুসারী ছিল। তারপরও ধর্মকে ব্যবহার করে আরও মর্যাদা ও অর্থবিত্তের মালিক হওয়ার আকাঙ্ক্ষায় তিনি 'ক' অঞ্চলে টেরা খুলে বসেন। নিজে ধর্মগুরু সেজে কাল্পনিক ধর্ম বিশ্বাসের মিথ্যা লোভ দেখিয়ে প্রচুর ভন্ত ও অর্থের মালিক হন। কিন্তু তার এহেন কার্যকলাপ রাষ্ট্র ধর্মের জন্য হুমকি মনে করে সরকার তার বিরুদ্ধে কঠেঠর ব্যবস্থা গ্রহণ করে। একই সাথে অন্যান্য ধর্ম ব্যবসায়ীদেরও সরকার সমূলে দমন করে।

DB, RB, MB 22
ব্যাখ্যা আনলক করতে চর্চা প্রিমিয়াম এ আপগ্রেড করো

2. ভ্রান্তিবিলাসী আরব বসন্তের ঢেউ মিসরের বয়োঃবৃদ্ধ প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করে। কিন্তু জনগণ নতুন যাকে শাসক নিয়োগ করে তিনি সেনাপ্রধানের সাথে ক্ষমতার দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন। ফলে নতুন শাসক শক্তি ও শাসনে যোগ্যতার পরিচয় দিলেও কূটকৌশলে বিরোধীদের কাছে হেরে যান এবং অল্প সময়ের মধ্যে কঠিন পরিণতি ভোগ করেন। সেনাপ্রধান খোলস ছেড়ে প্রেসিডেন্টের পদ দখল করেন।

DB 22
ব্যাখ্যা আনলক করতে চর্চা প্রিমিয়াম এ আপগ্রেড করো

3. প্রাচীন রুশ দেশীয় একজন রাজা প্রজাহিতৈষী ছিলেন। তার মহানুভবতায় আকৃষ্ট হয়ে দেশের অভ্যন্তরে একদল মানুষ তাকে ঈশ্বরের সাথে তুলনা করতে থাকে। এতে রাজা বিব্রতবোধ করেন। উক্ত আচরণ থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে রাজা তাদের বন্দি করেন। উক্ত সম্প্রদায়ের আচরণ ও কর্মকাণ্ডে রাজ্যে বিদ্রোহ দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা ছিল। তাদের বন্দি করার ফলে রাজা বড় ধরনের বিপদের হাত থেকে রক্ষা পায়। এর ফলে রাজ্যে বিশৃঙ্খলা প্রশমিত হয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হয়।

DB, RB, JB 22
ব্যাখ্যা আনলক করতে চর্চা প্রিমিয়াম এ আপগ্রেড করো

4. চেঙ্গিস খান শুধু তার নিজস্ব বীরত্বে বিশাল সাম্রাজ্যের অধিকারী হতে পারেননি । তার দক্ষ সেনাপতিদের রণনিপুনতাই তার সাম্রাজ্যের বিশাল বিস্তৃতির প্রধান কারণ ছিল। তাছাড়া সাম্রাজ্য বিস্তার করেই তিনি ক্ষান্ত হননি। তার বিশাল সাম্রাজ্যকে তিনি উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চল নামক দুইটি প্রধান উইং এ বিভক্ত করে সেখানে দুইজন দক্ষ প্রতিনিধি নিয়োগ করেছিলেন। তারা দুইজনই পরস্পর প্রতিযোগিতার। মাধ্যমে রাজ্য বিস্তার করতেন। তবে এদের মধ্যে দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রতিনিধি মজা খান ছিলেন খুবই নৃশংস।

DB, RB, JB 22
ব্যাখ্যা আনলক করতে চর্চা প্রিমিয়াম এ আপগ্রেড করো

5. নাদির শাহ প্রজাদের সুবিধার্থে যে খাল খনন করেছিলেন তা আমাতুন বিবির খাল নামে পরিচিত। নাদির শাহের রাজ্যের সুখ- স্বাচ্ছন্দ্যের কথা মানুষের মুখে মুখে। প্রজাদের প্রতি তার দরদ বিশ্ববাসী জেনে যায়। তার পার্শ্ববর্তী শক্তিধর রাজ্যের শাসক মানিক চাঁদ একবার তার রাজ্য আক্রমণ করলে নাদির শাহ এমন দাঁতভাঙা জবাব দেন যে, মানিক চাঁন তার আনুগত্য স্বীকার করে কর প্রদানে বাধ্য হন ।

DB, RB, JB 22
ব্যাখ্যা আনলক করতে চর্চা প্রিমিয়াম এ আপগ্রেড করো

Nothing more to show